National Register of Citizens (NRC) Explained in Bengali

Share

National Register of Citizens (NRC) Explained in Bengali for WBCS

ভারত একটি সুবিশাল দেশ যার বেশ কিছু রাজ্য প্রতিবেশী দেশগুলির সীমান্তের খুব কাছাকাছি অবস্থান করে। অসম ভুদৃশ্যের কারণে এই সীমান্তকে সম্পূর্ণ ভাবে সীমাবদ্ধ করা অসম্ভব।

অতীতে, বহিরাগত সীমান্ত দিয়ে বিভিন্ন দেশের অনেক অবৈধ অভিবাসনের কথা আমরা সকলে শুনেছি। বিশেষত বাংলাদেশ ও মায়ানমার থেকে আসামে এসে বসতি স্থাপন করার।

আসামে বাংলাদেশ থেকে অবৈধ অভিবাসনের প্রধান সমস্যা মোকাবেলা করার জন্য নাগরিকদের জাতীয় নিবন্ধন/National Register of Citizens (NRC) চেষ্টা করছে।

National Register of Citizens (NRC) রাজ্যের জনসংখ্যার বহিরাগতদের সঠিক সংখ্যা বিবেচনা করে। ‘বহিরাগত’দের  পরিত্রাণ করার ধারণাটিতে দুটি গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে-

  1. NRC খসড়া গ্রহণ করলে, অবৈধ অভিবাসীরা দেশছাড়া হবে।
  2. NRC খসড়াতে যারা উপস্থিত থাকবে তারা নাগরিকত্বের তকমা অর্জন করবে।আশা করা যাচ্ছে, এই প্রক্রিয়া উপযুক্ত এবং নিরপেক্ষ প্রক্রিয়া হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

এবার আমরা দেখে নেব এনআরসি ঘিরে কেন এতো উত্তাল দেশে। কী এই এনআরসি? কেন এত বিতর্ক? এনআরসি তালিকায় নাম না উঠলে কী হবে এবং আরও কিছু প্রশ্নও।

National Register of Citizens
Photo Courtesy: India.com

What is National Register of Citizens (NRC)?

  • ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেন্স অর্থাৎ NRC মানে এটি রাজ‍্যের বৈধ নাগরিকদের তালিকা ৷
  • প্রথমবার এই তালিকা তৈরি হয় ১৯৫১ সালে ৷
  • ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে এই তালিকা নবীকরণের কাজ শুরু হয় ৷
  • ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের আগে অসমে আসা ব্যক্তি ও তাঁদের বংশধরদের নামই এনআরসিতে উঠবে বলে জানানো হয় ৷
  • ২০১৫ সালে এনআরসি নবীকরণের কাজ শুরু হয় ৷ কয়েক দফায় তারিখ পিছোনোর পরে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর প্রথম খসড়া প্রকাশিত হয় ৷ দ্বিতীয় খসড়া তালিকা প্রকাশিত হয়েছে ৩০ জুলাই, ২০১৮ ৷

National Register of Citizens (NRC) তালিকায় নাম না উঠলে কী হবে?

  • এই দ্বিতীয় তালিকায় ৪০ লক্ষের নাম ওঠেনি। আফগানিস্তান, ইরাক বা সিরিয়ার মতো গৃহযুদ্ধ নেই। অথচ, কলমের খোঁচায় আচমকাই নাগরিকত্ব হারানোর মুখে ৪০ লক্ষ মানুষ।
  • অসমের খসড়া নাগরিকপঞ্জি-তে চল্লিশ লাখ মানুষের নামের পাশে লালকালির দাগ। কার্যত রাতারাতি ভারতীয় নাগরিকত্ব হারানোর পথে তাঁরা।
  • নাগরিক পঞ্জিতে নাম তোলার জন্য আবেদন করেন ৩ কোটি ২৯ লক্ষ মানুষ ৷ তালিকায় প্রকাশিত হয়েছে ২ কোটি ৮৯ লক্ষ মানুষের নাম ৷ কার্যত রাতারাতি উদ্বাস্তু ৪০ লক্ষ মানুষ ৷

National Register of Citizens (NRC): রাজ্যসরকারের মতামত

  • বিজেপি শাসিত অসম সরকার ও এনআরসি কর্তৃপক্ষের দাবি, যাঁদের নাম দ্বিতীয় তালিকাতেও ওঠেনি, তাঁরা আরও একবার নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমাণের সুযোগ পাবেন।

  • জাতীয় নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হবে এ বছর ডিসেম্বরে।
  • সেই তালিকায় কারও নাম না থাকলে সেক্ষেত্রে ফরেনারস ট্রাইব‍্যুনাল এবং সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানানো যাবে ৷

National Register of Citizens (NRC): সুপ্রিম কোর্টের মতামত

  • অন্যদিকে, সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, অসমে নাগরিকপঞ্জির দ্বিতীয় খসড়ায় যে চল্লিশ লক্ষ মানুষের নাম নেই, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা যাবে না।

  • বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এবং বিচারপতি রোহিংটন নরিম‍্যানের ডিভিশন বেঞ্চ মঙ্গলবার নির্দেশ দিয়েছে, চল্লিশ লক্ষ মানুষ তালিকায় নাম তুলতে যেন ঠিক মতো সুযোগ পায়।
  • যাঁদের নাম তালিকায় ওঠেনি, তাঁরা ৮ অগাস্ট থেকে নিজেদের দাবিদাওয়া ও অভিযোগ জানাতে পারবেন। যা খতিয়ে দেখা হবে ৩০ অগাস্ট থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।
  • ৩১ ডিসেম্বর চূড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি প্রকাশ করা হবে,চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের দিনক্ষণ ঠিক করবে শীর্ষ আদালতই।

Sources: The Hindu & The Financial Express

Read Bangla Current AffairsGeneral Awareness

 

যদি আর্টিকেলটি ভাল লাগে, অবশ্যই শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে এবং পরবর্তী সব পোস্টগুলির নোটিফকেশন পেতে লাইক করুন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ Pratiyogita Abhiyan

ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

6 + thirteen =